মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিলেন আরিফুল হক চৌধুরী  » «   সিম রেজিস্ট্রেশনে আর কাগজ-কলম লাগবে না  » «   টাইফুন ‘জেবি’র আঘাতে লণ্ডভণ্ড জাপান, নিহত ৯  » «   রোনালদোর বেতন তিন গুণ বেশি!  » «   দ্বিতীয়বার সিলেটের মেয়র হিসেবে শপথ নিলেন আরিফ  » «   যে নামগুলো পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করবেন না  » «   ট্রাম্পের ‘প্যান্ট’ খুলে দিল যে বই  » «   নিরাপদ সড়ক আন্দোলন: ঘটনাই ঘটেনি, মামলা করে রেখেছে পুলিশ  » «   ‘অ্যাওয়ে গোল’ বাতিল করো, দাবি মরিনহো-ওয়েঙ্গারদের  » «   শহিদুলকে প্রথম শ্রেণির বন্দীর সুবিধা দিতে নির্দেশ  » «   আরপিও সংশোধন নিয়ে নির্বিকার নির্বাচন কমিশন  » «   মাহাথিরের রসিকতায় শ্রোতাদের মধ্যে হাসির রোল!  » «   দেশের বাইরে রান করাটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি : মুশফিক  » «   দুর্দান্ত জয়ে সিপিএলের শীর্ষে মাহমুদুল্লাহরা  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিএনপির ২ দিনের কর্মসূচি  » «  

হবিগঞ্জে মেলায় ৩৫ কেজির বোয়াল

হবিগঞ্জ সংবাদদাতা
হবিগঞ্জের পইলের মাছের মেলায় এবার ৩৫ কেজি ওজনের একটি বোয়াল আনা হয়েছে।
ঐতিহ্যবাহী এই মেলায় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার ক্রেতা-বিক্রেতা ভিড় করেছেন এই মেলায়। প্রতি বছরই পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে বসে এই মেলা। প্রতিবারই মেলার সবচেয়ে বড় মাছটি ঘিরেই থাকে মূল আলোচনা।
এবারের মেলার মূল আকর্ষণ ৩৫ কেজির একটি বোয়াল। সবচেয়ে বড় এই মাছটি মেলায় এনেছেন হবিগঞ্জ পৌরসভার উমেদনগর এলাকার মিন্নত আলী।
মিন্নত আলী জানান, তিনি কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর থেকে মাছটি কিনে এনেছেন বিক্রি করার জন্য। ক্রেতাদের কাছে মাছের দাম হাঁকছেন ৬০ হাজার টাকা। তবে মাছটি কিনতে অনেকে ভীড় করলেও ৩০ হাজারের বেশি কেউ দিতে চাচ্ছেন না। যদিও নিজের চাহিদামতো দামেই বিক্রি করতে পারবেন বলে আশাবাদী মিন্নত আলী।
রোববার (১৪ জানুয়ারি) সকাল থেকেই শুরু হয় মাছের মেলা। মেলা জমে ওঠে বিকেলে। তবে আয়োজকরা জানান, মাছ বেশি বিক্রি হয় রাতে।
বিকেলে কথা হয় মেলায় আসা পইল গ্রামের শিবেন্দ্র চন্দ্র দাশ শিবুর সঙ্গে। তিনি বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারো এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। এবার হাজার খানেক মাছ বিক্রেতা দোকান বসিয়েছেন। তবে অন্যান্য বছরের তুলনায় এই বছর ক্রেতার উপস্থিতি একটু কম।
৩৫ কেজি ওজনের বোয়াল মাছ ছাড়াও বড় বড় বাঘাইড়, ঘাগট, রুই, কাতলা, ছিতল, গুছিসহ ছোট বড় বিভিন্ন প্রজাতির দেশি মাছ নিয়ে এসেছেন বিক্রেতারা। মেলায় মাছ ছাড়াও শিশুদের বিভিন্ন ধরনের খেলনা ও হরেক রকমের খাবারের পসরা সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা।
হবিগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এটিএম আজহারুল ইসলাম জানান, মেলায় যাতে কোনো বিশৃঙ্খলা না হয় সেজন্য প্রশাসন সতর্ক রয়েছে। তিনিসহ অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তারা মেলা পরিদর্শন করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: