সিলেট সংলাপ | SYLHETSANGLAP.COMবৈশ্বিক আবাসন শিল্পে তাল মেলাতে অর্থায়ন ম্যাট্রিক্স! | সিলেট সংলাপ | SYLHETSANGLAP.COM

সোমবার, ২০ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
মৌলভীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  » «   সিলেটে চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা লক্ষাধিক পিস  » «   ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে অবরোধ প্রত্যাহার  » «   পেট পরিষ্কার রাখতে যা খাবেন  » «   আমূল পরিবর্তন আসছে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায়  » «   ক্রেতা আনাগোনা কম সিলেটের পশুর হাটে!  » «   দক্ষিণ সুরমায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৩০  » «   বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স  » «   পরিকল্পিত নগর গড়ার অঙ্গীকার সিসিক মেয়র প্রার্থীদের  » «   প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া  » «   বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্স  » «   উপহারের টাকায় কামরান, বেতনের টাকায় আরিফের নির্বাচনী ব্যয়  » «   ব্রাজিলকে কাঁদিয়ে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে বেলজিয়াম  » «   উরুগুয়েকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ফ্রান্স  » «   টাইব্রেকারে ইতিহাস গড়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ড  » «  

বৈশ্বিক আবাসন শিল্পে তাল মেলাতে অর্থায়ন ম্যাট্রিক্স!

সিলেট সংলাপ ডেস্কঃ
আন্তর্জাতিক আবাসন ও বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান জেএলএল’র প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৭ সালে পুরো বিশ্বে ৭০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যবসা হয়েছে। ২০১৪ ও ২০১৫ সালের মন্দাভাব কাটিয়ে ২০১৭ সালে ঘুরে দাঁড়ায় দেশের আবাসন খাত। ফলে ২০১৭ সালকে সুভাগ্যের বছর হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন এ খাতের ব্যবসায়ীরা।
চলতি বছরে (২০১৮) অবস্থার আরও উন্নতির পাশাপাশি সংশয় কাজ করছে আবাসন ব্যবসায়ীদের মধ্যে। তারা বলছেন, ২০১৮ সাল আবাসন খাতের জন্য চ্যালেঞ্জের বছর হতে পারে। কারণ দেশের ব্যাংকগুলোতে তারল্য সংকটের কারণে গৃহঋণ প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হতে পারে। তবে বিশেষ উদ্যোগে এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা সম্ভব বলে মনে করছেন তারা।
আবাসন শিল্পের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শনিবার(১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কথা হয় দেশের অন্যতম শীর্ষ শিল্পগ্রুপ রেনকন হোল্ডিংসের প্রতিষ্ঠান র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিস লিমিটেডের সিইও তরুণ কর্পোরেট ব্যক্তিত্ব প্রকৌশলী তানভীর শাহরিয়ার রিমনের সঙ্গে।
তিনি মনে করেন বৈশ্বিক আবাসন শিল্পের সঙ্গে তাল মেলাতে প্রয়োজন অভিনব অর্থায়ন মেট্রিক্স। বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ ব্যবস্থাপনায় ২০ হাজার কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠন জরুরি উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই তহবিল থেকে বিভিন্ন ব্যাংক ও অর্থলগ্নীকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে মধ্যবিত্ত শ্রেণির জন্য কম সুদে ঋণ দেওয়ার ব্যবস্থা করলে এ খাত আরও গতিশীল হবে।
২০১৭ সালের ব্যবসায়ীক ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালে আবাসন ব্যবসার প্রবৃদ্ধি বাড়ার কথা থাকলেও বছরটি চ্যালেঞ্জের হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তানভীর শাহরিয়ার।
ব্যাংকগুলোর তারল্য সংকটের কারণে গৃহঋণ প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হতে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, রেজিস্ট্রেশন ব্যয় ৭ শতাংশে নামিয়ে আনলে সরকার এ খাত থেকে বিপুল রাজস্ব আদায় করতে পারবে।
প্রথাগত ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনার বাইরে এসে তরুণ পেশাজীবীদের জন্য আয়ের সঙ্গে ভারসাম্য রেখে কিস্তি সুবিধায় ৩০ বছর মেয়াদি গৃহঋণের ব্যবস্থা করা জরুরি। কারণ দেশের ৮০ শতাংশ মানুষের নিজের আবাসন ব্যবস্থা আমরা করতে পারিনি। বিরাট এই জনগোষ্ঠীর আবাসনের ব্যবস্থা করতে বিশেষায়ীত ফাইনান্স মেট্রিক্স অনেক বেশি কার্যকর হবে বলেও মনে করেন র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিস লিমিটেডের সিইও।
সূত্রঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সংবাদটি শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: