রবিবার, ২৭ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
নগরীর অভিজাত শপ-রেস্টুরেন্টে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা  » «   রাশিয়ার মিসাইলেই বিধ্বস্ত হয় মালেশিয়ার বিমান: তদন্ত দল  » «   রাজস্থানকে বিদায় করে কোয়ালিফায়ারে কলকাতা  » «   সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে কৃষক নিহত  » «   নগরীতে বাসের ধাক্কায় ব্যবসায়ী নিহত  » «   ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২ কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রাসহ যাত্রী আটক  » «   ধীরে ধীরে ইসলাম ধর্মের প্রতি আমি দুর্বল হয়ে যাচ্ছিলাম  » «   অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ আর নেই  » «   খাবারে ভেজাল মেশানো বড় পাপ : বিভাগীয় কমিশনার  » «   চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালঃ রিয়ালের বড় বাধা সালাহ!  » «   খুলনায় নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ: সুজন  » «   লোকবল আর প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাবে ধ্বংস হচ্ছে লাউয়াছড়া বন ও বন্যপ্রাণী  » «   গোয়াইনঘাটে ২০ দিন ধরে যুবক নিখোঁজ  » «   ১৪১ বাংলাদেশি যাত্রী নিয়ে সৌদি বিমানের জরুরি অবতরণ  » «   জেরুসালেমের ব্যাপারে বিন্দুমাত্র ছাড় দেবে না তুরস্ক: এরদোগান  » «  

র‍্যাব এর হেফাজতে হামলাকারীঃ জিজ্ঞাসাবাদ করতে সিলেট আসছে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট

স্টাফ রিপোর্টারঃ
বিশিষ্ট লেখক ও শিক্ষাবিদ এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাতকারী যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করতে সিলেট আসছে জঙ্গি দমনে পুলিশের বিশেষায়িত কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিট (সিটিটিসি)। সিটিটিসির উপ-কমিশনার মহিবুল ইসলাম খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
দায়িত্বশীল সুত্র জানিয়েছে, ড. জাফর ইকবালকে বিভিন্ন সময়ে জঙ্গিগোষ্ঠী হুমকি দিয়েছিল। এ কারণে তাকে অতিরিক্ত পুলিশি নিরাপত্তাও দেয়া হয়। এছাড়া শুক্রবার (২ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ে দু’দিনব্যাপী ‘তড়িৎ প্রকৌশল উৎসব-২০১৮’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের দায়ে বহিষ্কৃতদের শাস্তি বহাল রাখার দাবি জানান। পাশাপাশি বহিষ্কৃতদের পক্ষে আন্দোলনকে কুৎসিত আন্দোলন বলেও মত দেন তিনি।
সব কিছু মাথায় রেখে ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। শনিবার রাতের মধ্যেই কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছবে বলে জানা গেছে।
প্রখ্যাত লেখক এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারী যুবককে র‌্যাবের কাছে  সোপর্দ করা হয়েছে।
শনিবার (০৩ মার্চ) রাত ৯টার দিকে তাকে র‌্যাব-৯ এর হাতে তুলে দেওয়া হয়। তবে এখনও হামলাকারী যুবকের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।
‘অনুষ্ঠানের আয়োজনস্থল মুক্তমঞ্চে অন্য অতিথিদের সঙ্গে বসা ছিলেন অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। মঞ্চের পেছন থেকে এসে হঠাৎ তার মাথায় ছুরিকাঘাত করে দুর্বৃত্ত। সঙ্গে সঙ্গে মাথা থেকে রক্তক্ষরণ হতে থাকে। তাকে নিয়ে হাসপাতালে ছোটেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অন্য শিক্ষার্থীরা পাকড়াও করে ফেলে ওই দুর্বৃত্তকেও। বেধড়ক পিটুনি দিয়ে তাকে একাডেমিক ভবনের একটি কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়।’ সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে একটি অনুষ্ঠানে ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলার বর্ণনা এভাবেই মিডিয়ার কাছে দিচ্ছিলেন কয়েকজন শিক্ষার্থী। শনিবার (৩ মার্চ) বিকেলে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) ফেস্টিভ্যালের সমাপনী অনুষ্ঠানে ওই যুবকের ছুরিকাঘাতে জখম হন দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদ জাফর ইকবাল।
কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থী জানান, শুক্রবার (২ মার্চ) এই ফেস্টিভ্যাল উদ্বোধনের পর শনিবার বিকেলে সমাপনীতেও যোগ দেন ড. জাফর ইকবাল। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন।
ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় দুইজন অংশ নিয়েছিল। এর মধ্যে একজন ছিল মোটরবাইক আরোহী। হামলার পরপরই সে পালিয়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা জানান, দিনভর ওই হামলাকারীরা ক্যাম্পাসে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করেছে। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক ছিল। এদেরই একজনকে হামলার পরপর গণধোলাই দিয়ে অাটকে রাখে শিক্ষার্থীরা।
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট ‍সূত্র জানায়, অচেতন অবস্থায় পড়ে ছিল হামলাকারী। বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারের একজন চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। এরপরই জ্ঞান ফিরে আসে তার।
তখন ওই যুবককে র‌্যাবের তত্ত্বাবধানে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত শুরু হবে বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৯ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহম্মেদ।
তিনি বলেন, আমরা ক্যাম্পাস থেকে হামলাকারীকে নিয়ে হাসপাতালে যাচ্ছি। সেখানে চিকিৎসা দেওয়ার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত শুরু হবে।
এর আগে বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল অডিটোরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা প্রদান শেষে আইসিটি ভবনে যাবার সময় পেছন থেকে ড. জাফর ইকবাল এর বুকে, গলায় ও মাথায় ছুরি দিয়ে আঘাত করে হামলাকারী। রক্তাক্ত অবস্থায় ড. জাফর ইকবালকে উদ্ধার করে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তির পর সেখানে ড. জাফর ইকবালের একটি অস্ত্রোপচার সম্পন্ন করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে শনিবার রাতেই বিমানবাহিনীর একটি এয়ার এ্যাম্বুলেন্সে তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়া হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
Share on Facebook1Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: