সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
তৃতীয়বার আইপিএল চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস  » «   নগরীর অভিজাত শপ-রেস্টুরেন্টে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা  » «   রাশিয়ার মিসাইলেই বিধ্বস্ত হয় মালেশিয়ার বিমান: তদন্ত দল  » «   রাজস্থানকে বিদায় করে কোয়ালিফায়ারে কলকাতা  » «   সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে কৃষক নিহত  » «   নগরীতে বাসের ধাক্কায় ব্যবসায়ী নিহত  » «   ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২ কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রাসহ যাত্রী আটক  » «   ধীরে ধীরে ইসলাম ধর্মের প্রতি আমি দুর্বল হয়ে যাচ্ছিলাম  » «   অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ আর নেই  » «   খাবারে ভেজাল মেশানো বড় পাপ : বিভাগীয় কমিশনার  » «   চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালঃ রিয়ালের বড় বাধা সালাহ!  » «   খুলনায় নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ: সুজন  » «   লোকবল আর প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাবে ধ্বংস হচ্ছে লাউয়াছড়া বন ও বন্যপ্রাণী  » «   গোয়াইনঘাটে ২০ দিন ধরে যুবক নিখোঁজ  » «   ১৪১ বাংলাদেশি যাত্রী নিয়ে সৌদি বিমানের জরুরি অবতরণ  » «  

কনস্টেবল নিয়োগে স্বচ্ছতার দৃষ্টান্ত মৌলভীবাজার পুলিশের

মৌলভীবাজার সংবাদদাতাঃ
মৌলভীবাজার পুলিশ লাইন্সে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (পুরুষ/মহিলা) পদে নিয়োগে স্বচ্ছতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে পুলিশ। এ নিয়োগ প্রক্রিয়ায় প্রাথমিক নির্বাচিতরা যেমন জেলা পুলিশের প্রতি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন তেমনই প্রশংসা করেছেন সাধারণ মানুষ।
গত ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চ পর্যন্ত পুলিশের এ নিয়োগ নিয়ে কোনো ধরনের আর্থিক লেনদেন ও তদবির যাতে না হয় সে বিষয়ে আগে থেকে সর্বোচ্চ প্রচারণা চালান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ জালাল। ফলে এবারের নিয়োগে স্বচ্ছতার দৃষ্টান্ত গড়েছেন মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ।
পুলিশ সুপার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি বাছাই পর্বে ১ হাজার ৭৪০ জন নারী-পুরুষ প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন। যার মধ্যে ৭৬১ জন রিটেন পরীক্ষা দিয়ে ৪০২ জন উত্তীর্ণ হয়। মৌখিক যাচাই-বাছাই শেষে তাদের মধ্য থেকে ৭০ জন পুরুষ সাধারণ ক্যাটাগরিতে, একই ক্যাটাগরিতে ১৩ জন নারী, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় পুরুষ ৮ জন, উপজাতি কোটায় পুরুষ ৬ জন ও পুলিশ পোষ্য কোটায় পুরুষ ৩ জন ও একজন নারীকে নির্বাচিত করা হয়। যাদের মেধা ও যোগ্যতা নিখুঁতভাবে পর্যালোচনা করে বাছাই করা হয়।
জানা যায়, এবছর কনস্টেবল নিয়োগে আগে থেকে সতর্ক অবস্থানে ছিল জেলা পুলিশ। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালালের নির্দেশে দালাল ও তদবির টেকাতে জেলাব্যাপী চালানো হয় প্রচারণা। আর্থিক লেনদেন ও তদবির না করতে মাইকিং ও পোস্টারিং করা হয়। নিয়োগ প্রক্রিয়া চলাকালীন পুলিশ সুপারের সরকারি মোবাইল ফোন বন্ধ ও তার কার্যালয়ে প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত করা হয়েছিল যাতে কেউ কোন তদবির করতে না পারে। ফলে তদবির ছাড়াই যোগ্যতার বিচারে সম্পূর্ণ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় পুলিশ সদস্য বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।
কনস্টেবল নিয়োগে প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত একাধিক প্রার্থী জানান, আর্থিক কোনো লেনদেন ছাড়াই নিজ যোগ্যতায় তারা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন।
সাধারণ নারী কোটায় ৮০ নং রোলের প্রার্থী ফারজানা আক্তার বলেন, আমি সব পরীক্ষায় ভালভাবে উত্তীর্ণ হয়েছি। শুধু তাই নয়, ভাইবা পরীক্ষায় আমি সবার মধ্যে ২য় স্থান অধিকার করি। বাছাই পর্বের প্রথমদিন পুলিশ সুপার স্যার আমাদের বলেছিলেন যোগ্যতা যার সেই চাকরি পাবে। সেই থেকে আমি আত্মবিশ্বাস নিয়ে পরীক্ষা দেই। কোনো তদবির ও দালাল না ধরেই আমি নির্বাচিত হয়েছি।
নিয়োগ প্রার্থী সাধারণ পুরুষ কোটার ৫৪০ নং রোলের সুজিত দেব বলেন, আগে শুনেছি টাকা দিয়ে পুলিশে নিয়োগ নিতে হয় কিন্তু এবার পুলিশ সুপার স্যার বলেছিলেন টাকা ছাড়া যোগ্যতায় নিয়োগ হবে। ঠিক তাই হয়েছে, আমি টাকা ছাড়াই সব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছি। আমি কৃষকের ছেলে, বাবা কিডনি রোগী। টাকা দেয়ার ক্ষমতাই আমার ছিল না।
মৌলভীবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. রাশেদুল ইসলাম জানান, আমাদের এসপি স্যার অত্যন্ত পরিশ্রম করে এ নিয়োগ প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়েছেন। প্রত্যেক প্রার্থীর পরীক্ষার খাতা নিখুঁতভাবে যাচাই করে আমরা মার্কিং করেছি। ভাইবা পরীক্ষার উত্তরপত্র দেখে তাদের প্রশ্ন করা হয় এবং যাচাই করা হয়েছে। এই কঠিন প্রক্রিয়ায় একমাত্র যোগ্য ও মেধাবীরা নির্বাচিত হয়েছে।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ জালাল বলেন, এ নিয়োগে কোনো সাধারণ ও নিরীহ মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে খেয়াল রেখে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আনতে চেষ্টা করেছি। কেউ কোনো দুর্নীতির সুযোগ পায়নি। আমার টার্মে চারবার পুলিশ নিয়োগ নিয়েছি। যার মধ্যে এটাই সর্বোত্তম নিয়োগ।
পুলিশের বড় কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতা বা দালালই হোক কারও তদবিরে কোনো কাজ হয়নি। সম্পূর্ণ মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে কনস্টেবল নিয়োগের জন্য প্রাথমিক বাছাই পর্ব সম্পন্ন হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
Share on Facebook1Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: