বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিলেন আরিফুল হক চৌধুরী  » «   সিম রেজিস্ট্রেশনে আর কাগজ-কলম লাগবে না  » «   টাইফুন ‘জেবি’র আঘাতে লণ্ডভণ্ড জাপান, নিহত ৯  » «   রোনালদোর বেতন তিন গুণ বেশি!  » «   দ্বিতীয়বার সিলেটের মেয়র হিসেবে শপথ নিলেন আরিফ  » «   যে নামগুলো পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করবেন না  » «   ট্রাম্পের ‘প্যান্ট’ খুলে দিল যে বই  » «   নিরাপদ সড়ক আন্দোলন: ঘটনাই ঘটেনি, মামলা করে রেখেছে পুলিশ  » «   ‘অ্যাওয়ে গোল’ বাতিল করো, দাবি মরিনহো-ওয়েঙ্গারদের  » «   শহিদুলকে প্রথম শ্রেণির বন্দীর সুবিধা দিতে নির্দেশ  » «   আরপিও সংশোধন নিয়ে নির্বিকার নির্বাচন কমিশন  » «   মাহাথিরের রসিকতায় শ্রোতাদের মধ্যে হাসির রোল!  » «   দেশের বাইরে রান করাটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি : মুশফিক  » «   দুর্দান্ত জয়ে সিপিএলের শীর্ষে মাহমুদুল্লাহরা  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিএনপির ২ দিনের কর্মসূচি  » «  

প্রশাসনিক জটিলতায় সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

সিলেট সংলাপ ডেস্কঃ
প্রশাসনিক জটিলটায় ভূগছে সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা। বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় কিছু দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সদ্য অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে অংশগ্রহনের জন্য পদত্যাগ পত্রও জমা দিয়েছিলেন সদ্য বাতিল হওয়া কমিঠির চার সদস্য।
জানা যায়, ক্রীড়া সংস্থার গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কোন চলমান কমিটির কোন ব্যক্তি প্রাথী হতে চাইলে প্রথমে ওই পদ থেকে তিনি পদত্যাগ করতে হবে। সে লক্ষ্যে প্রদত্যাগ করেছিলেন সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সিলেট মহানগর আ.লীগ নেতা শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, কোষাধক্ষ্য শহীদ আহমদ চৌধুরী জুয়েল, সহ সম্পাদক ইমরান আহমদ ও সদস্য মোস্তফা ফরিদুল কোরেশী।
এদিকে অনুষ্টিতব্য নির্বাচন স্থগিত চেয়ে ২৩শে এপ্রিল হাইকোর্ট ডিবিশনে একটি রিট করেন সালমা সুলতানা নামে এক মহিলা। রোববার (৬ মে) তার ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত একটি বেঞ্চ সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন স্থগিত করেছেন। বিষটি নিশ্চিত করেছেন সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সদস্য শমসের জামাল।
নির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, নিয়ম অনুযায়ী ভোটার তালিকা প্রকাশ করার পূর্বে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারি প্রার্থীদের পদত্যাগ করার কথা থাকলেও ওই সকল প্রার্থী ভোটার তালিকা প্রকাশ করার পর পদত্যাগ করেছেন। এবং গঠনতন্ত্রের ২৩ ধারা অনুযায়ী এডহক কমিটির কেউ নির্বাচনে অংশ্রহন করতে পারবেন না বলেও গঠনতন্ত্রে উল্লেখ রয়েছে। সে বিষয়টি আদালতের নজরে আসায় আদালত নির্বাচন স্থগিত করেছেন।
তিনি আরো বলেন, যেহেতু মহামান্য হাইকোর্ট নির্বাচন স্থগিত করেছেন। এবং ওই চার সদস্য পদত্যাগ করেছেন সেহেতু পদত্যাগকারী ওই চার জন গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ক্রীড়া সংস্থার কোন পদ পদবী ও সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন না।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: