সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম
আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিলেন আরিফুল হক চৌধুরী  » «   সিম রেজিস্ট্রেশনে আর কাগজ-কলম লাগবে না  » «   টাইফুন ‘জেবি’র আঘাতে লণ্ডভণ্ড জাপান, নিহত ৯  » «   রোনালদোর বেতন তিন গুণ বেশি!  » «   দ্বিতীয়বার সিলেটের মেয়র হিসেবে শপথ নিলেন আরিফ  » «   যে নামগুলো পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করবেন না  » «   ট্রাম্পের ‘প্যান্ট’ খুলে দিল যে বই  » «   নিরাপদ সড়ক আন্দোলন: ঘটনাই ঘটেনি, মামলা করে রেখেছে পুলিশ  » «   ‘অ্যাওয়ে গোল’ বাতিল করো, দাবি মরিনহো-ওয়েঙ্গারদের  » «   শহিদুলকে প্রথম শ্রেণির বন্দীর সুবিধা দিতে নির্দেশ  » «   আরপিও সংশোধন নিয়ে নির্বিকার নির্বাচন কমিশন  » «   মাহাথিরের রসিকতায় শ্রোতাদের মধ্যে হাসির রোল!  » «   দেশের বাইরে রান করাটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি : মুশফিক  » «   দুর্দান্ত জয়ে সিপিএলের শীর্ষে মাহমুদুল্লাহরা  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিএনপির ২ দিনের কর্মসূচি  » «  

শপথ নিয়ে ইতিহাস গড়লেন মাহাথির মোহাম্মদ

সিলেট সংলাপ ডেস্কঃ
মালয়েশিয়ার নির্বাচনে অভূতপূর্ব জয়লাভের পর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার পরে শপথ নিয়েছেন দেশটির ৯২ বছর বয়সী সাবেক নেতা মাহাথির মোহাম্মদ। এর মধ্য দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিজেকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেলেন এই বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ।
মালয়েশিয়ার স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৫৭ মিনিটে দেশটির রাজা সুলতান মুহাম্মদ তার প্রাসাদ ইসতানা নেগারাতে মাহাথির মোহাম্মদকে শপথ করান বলে দেশটির সংবাদ মাধ্যম স্টার অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
শপথ অনুষ্ঠানে সদ্য বিজয়ী পাকাতান হারাপানের জোটভুক্ত অন্য তিন দলের প্রধানরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এর মাধ্যমে দীর্ঘ ৬ দশক পর ক্ষমতাসীন বারিশান ন্যাশনালের (বিএন) একটানা শাসনের অবসান ঘটল। শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে মাহাথির মালয়েশিয়ার দায়িত্ব গ্রহণ করলে তিনি হবেন বিশ্বে ক্ষমতাসীন সবচেয়ে প্রবীণ নেতা।
ঘোষিত সরকারি ফলে দেখা গেছে, মাহাথিরের পাকাতান হারাপান জোট পার্লামেন্টের ২২২ আসনের মধ্যে ১১৩টিতে জয় পেয়ে সাধারণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। আর নাজিবের বিএন জোট ৭৯টি আসন ধরে রাখতে পেরেছে।
এই শাসক জোটের জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়তে শুরু করলেও বেশিরভাগ মানুষই কিন্তু ধারণা করেছিল প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক আরেক মেয়াদের জন্য আবার জয়ী হবেন। কিন্তু সরকারি ফল পর্যবেক্ষকদের রীতিমতো বিস্মিত করেছে। নির্বাচনের ফল ঘোষিত হওয়ার পর জনসম্মুখে কোনো কথা বলেননি বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নাজিব। তবে তার মন্ত্রিসভার এক সদস্য জানিয়েছেন, তারা জনগণের ইচ্ছাকে মেনে নেবেন।
গত বুধবার ভোট গ্রহণের পর গভীর রাতে মাহাথিরের জোটকে জয়ী ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এর পরপরই সরকার গঠনের জন্য মাহাথির মোহাম্মদকে আমন্ত্রণ জানান দেশটির রাজা। বৃহস্পতিবার দিনের পরবর্তী কোনো এক সময় মালয়েশিয়ার রাজার সঙ্গে দেখা করবেন তিনি। রাজধানী কুয়ালালামপুরের রাজপ্রাসাদে এক অনুষ্ঠানে রাজা মালয়েশিয়ার সাংবিধানিক রাজতন্ত্রের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগপত্রে স্বাক্ষর করবেন।
১৯৫৭ সালে ব্রিটিশের কাছ থেকে মালয়েশিয়া স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই বিএন জোট অপ্রতিরোধ্যভাবে দেশ শাসন করে আসছিল। মাহাথির বারিসান ন্যাশনালের (বিএন) প্রধানের দায়িত্ব পালন করেছেন। ২২ বছর তিনি সুনামের সঙ্গে ক্ষমতায় ছিলেন ১৯৮১ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত। ২০০৩ সালে তিনি ক্ষমতা থেকে প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ওপর আস্থা রেখে সরে দাঁড়ান। নাজিবের বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় তিনি আবারো রাজনীতিতে ফিরে আসেন এবং এ নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়লাভ করেন। মালয়েশিয়াকে উন্নতির পথে নিয়ে যাওয়া মাহাথির এ নির্বাচনে নিজের সাবেক দলের বিরুদ্ধেই লড়েছেন। এবং জয় ছিনিয়ে এনেছেন।
প্রধানমন্ত্রী নাজিবের বিরুদ্ধে মাহাথিরের এ অপ্রত্যাশিত জয়ে উৎসবে মেতেছে মালয়েশীয়বাসী। জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি ও কয়েক বিলিয়ন ডলারের দুর্নীতির অভিযোগে নাজিবের জনপ্রিয়তায় ধস নেমেছিল। পাকাতান হারাপান জোট শহুরে ভোট, সংখ্যালঘু চীনা ও ভারতীয় সম্প্রদায়ের ভোটের সমর্থন নিয়ে এবং মাহাথিরের জনপ্রিয়তা ব্যবহার করে বিএন জোটকে ধরাশায়ী করার পরিকল্পনা করেছিল। তাদের কৌশল সফল হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
রয়টার্স জানিয়েছে, মাহাথিরকে এখন তার নতুন জোটের চার দলের মধ্যে ঐক্য ধরে রাখার জন্য কাজ করতে হবে এবং কারগারে থাকা বিরোধীদলীয় নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমকে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী করতে পথ বের করতে হবে। মাহাথির বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী হিসাবে তিনি দুইবছর ক্ষমতায় থাকতে চান। এরপর তিনি কারাবন্দী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন। যিনি একসময় মাহাথিরের ঘনিষ্ঠ ছিলেন এবং যাকে ক্ষমতা থেকে সরিয়েছিলেন মাহাথির। একজন পুরুষ সহকর্মীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কের অভিযোগে আনোয়ার ইব্রাহিম বর্তমানে কারাবাস করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by: